শুক্রবার ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৯ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্রেকিং নিউজ
◈ রাঙ্গাবালীতে ভিটেবাড়ি ও কৃষি জমি রক্ষার দাবি পাঁচ পরিবারের ◈ রাঙ্গাবালীতে পল্লী বিদ্যুতের কাজে বাগড়া, সিন্ডিকেটের দাপট ◈ রাঙ্গাবালীতে পরকীয়ার জেরে মনির হত্যাকাণ্ড হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসি দাবি ◈ রাঙ্গাবালীতে ৩শ’ ফুট লম্বা কাঠের সেতু নির্মাণ ◈ রাঙ্গাবালীতে বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত ◈ ‘শিগগরই ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে’-এমপি মহিব ◈ রাঙ্গাবালীতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক ◈ রাঙ্গাবালীতে করোনাকালীন ক্ষতিগ্রস্থ পল্লী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদান করছেন বিআরডিবি ◈ গলাচিপায় ইউনিয়ন পর্যায়ে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু ◈ গলাচিপায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত

রাঙ্গাবালী প্রবেশ পথের করুণ দশা !

প্রকাশিত : ০৪:১৫ অপরাহ্ণ, ৭ জুলাই ২০২১ বুধবার 33 বার পঠিত

এম সোহেল প্রকাশক :

সড়কের নিচের মাটি সরে গেছে। সড়কের অর্ধেক ভেঙে গেছে। অর্ধেক ধসে পড়েছে। সড়ক রক্ষার গাইড ওয়ালটিও নদী গর্ভে রয়েছে। চলাচলের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে । ফলে দেশের যেকোন প্রান্ত থেকে আসা-যাওয়ায় রাঙ্গাবালীর প্রধান পথ কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট। কোড়ালিয়ার সেই পথের সড়কটি এখন বেহাল। সর্বশেষ ঘূর্ণিঝড় ইয়াসের তাÐবে এটি এখন চলাচলের একেবারেই অনুপযোগী হয়ে গেছে।
স্থানীয়রা জানান, প্রায় এক-দেড় বছর ধরে সড়কটির বেহাল দশা হয়। সড়কের একাংশ ভেঙে চুরমার, আরেক অংশ ধসে পড়েছে। সড়ক রক্ষায় যে গাইড ওয়াল করা হয়েছে, সেটিও এখন ঝুঁকিতে। যেকোন মুহূর্তে গাইড ওয়ালও নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার শঙ্কা রয়েছে। নদী ভাঙন ও প্রকৃতিক দুর্যোগে এমন করুণ দশায় পরিণত পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার প্রবেশ পথ কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট সড়কের। বুধবার সরেজমিনে এ চিত্র দেখা গেছে।
স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) উপজেলা কার্যালয়ের তথ্যমতে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট থেকে বেড়িবাঁধ পর্যন্ত ১০ লাখ টাকা ব্যয়ে ৩০০ ফুট আরসিসি সড়ক নির্মাণ করা হয়। নদী তীরবর্তী সড়কটি ঝুঁকিমুক্ত রাখতে ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ১৭ লাখ টাকা ব্যয়ে সেখানে আরসিসি গাইড ওয়াল নির্মাণ করা হয়।

কোড়ালিয়া লঞ্চঘাটের ব্যবসায়ী মোশারেফ মৃধা বলেন, এটি জনগুরুত্বপূর্ণ একটি সড়ক। লকডাউন না থাকলে প্রতিদিন হাজারও মানুষ এই সড়কে যাতায়াত করে। তাই সড়কটি নতুন করে নির্মাণের পাশাপাশি বøক দিয়ে গাইড ওয়ালটিও রক্ষা করা প্রয়োজন।
এ ব্যাপারে এলজিইডির উপজেলা প্রকৌশলী মো. মিজানুল কবির জানান, প্রাক্কলন করে এলজিইডিতে পাঠানো হয়েছে। কিন্তু এখনও অনুমোদন হয় নাই। অনুমোদন হলেই পরবর্তী প্রক্রিয়ার মাধ্যমে সড়কের কাজটি করা হবে।

 

 

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দর্পণ বাংলা'কে জানাতে ই-মেইল করুন। আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দর্পণ বাংলা'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দর্পণ বাংলা | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি | Developed by UNIK BD