রবিবার ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্রেকিং নিউজ
◈ রাঙ্গাবালীতে ভিটেবাড়ি ও কৃষি জমি রক্ষার দাবি পাঁচ পরিবারের ◈ রাঙ্গাবালীতে পল্লী বিদ্যুতের কাজে বাগড়া, সিন্ডিকেটের দাপট ◈ রাঙ্গাবালীতে পরকীয়ার জেরে মনির হত্যাকাণ্ড হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসি দাবি ◈ রাঙ্গাবালীতে ৩শ’ ফুট লম্বা কাঠের সেতু নির্মাণ ◈ রাঙ্গাবালীতে বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত ◈ ‘শিগগরই ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে’-এমপি মহিব ◈ রাঙ্গাবালীতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক ◈ রাঙ্গাবালীতে করোনাকালীন ক্ষতিগ্রস্থ পল্লী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদান করছেন বিআরডিবি ◈ গলাচিপায় ইউনিয়ন পর্যায়ে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু ◈ গলাচিপায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত

ঢাকামুখী লঞ্চ যাত্রীদের থেকে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ

প্রকাশিত : ০৯:১৯ অপরাহ্ণ, ২৩ জুলাই ২০২১ শুক্রবার 11 বার পঠিত

এম সোহেল প্রকাশক :

প্রতি বছরের ন্যায় এবারও পটুয়াখালীর ঢাকা-রাঙ্গাবালী নৌরুটের লঞ্চগুলোতে ঢাকামুখী যাত্রীদের কাছ থেকে বাড়তি ভাড়া আদায়ের অভিযোগ উঠেছে। ফলে ঈদ শেষে কর্মস্থলে ফেরা ঢাকা-রাঙ্গাবালী নৌ-রুটের যাত্রীদের বাড়তি ভাড়া দিতে হচ্ছে। পবিত্র ঈদুল আযহা’কে পুঁজি করেই এ প্রথা চালু করেছে লঞ্চ সংশ্লিষ্টরা।
স্থানীয়ভাবে জানা গেছে, প্রতিদিন সকাল ১১টায় উপজেলার কোড়ালিয়া লঞ্চঘাট থেকে একটি দোতলা লঞ্চ ঢাকার উদ্দেশ্যে ছেড়ে যায়। তবে এবার ঈদের এক সপ্তাহ আগে স্থায়ীভাবে চালু হওয়া রয়েল ক্রুজ-২ নামক একটি লঞ্চ একদিন পরপর দুপুর ১ টা থেকে দেড় টার মধ্যে ছেড়ে যায়। এই রুটের লঞ্চে প্রতিবছর ঈদ মুহূর্ত এলেই বাড়তি ভাড়া আদায় শুরু করে। ঈদের আগে এবং পরের প্রায় এক সপ্তাহ বা তার অধিক সময় ধরে বাড়তি ভাড়া নেওয়া হয়। এবারও ১০০ থেকে সর্বোচ্চ ২০০০ টাকা পর্যন্ত বাড়তি ভাড়া নিচ্ছেন লঞ্চ কর্তৃপক্ষ। শনিবার ঈদের পাঁচদিন হলেও বাড়তি ভাড়া আদায় থামেনি। এদিকে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ বলছেন, সারা বছরইতো কম ভাড়া নেওয়া হয়। শুধু ঈদের দুই-একদিন সামান্য বেশি ভাড়া নেওয়া হয়। এতে কোন সমস্যা হওয়ার কথা নয়।
লঞ্চ যাত্রীদের অভিযোগ, ঈদ মুহূর্ত ছাড়া বছরের অন্যান্য সময়ে রাঙ্গাবালী-ঢাকা নৌরুটের লঞ্চগুলোতে ডেকে ৩০০ টাকা নিলেও এখন ৪০০ টাকা নেওয়া হচ্ছে। আগে সিঙ্গেল কেবিন ৯০০ থেকে ১০০০ টাকা ছিল, এখন ১৫০০ থেকে ১৮০০ টাকা । আগে ডাবল কেবিন ১৭০০ থেকে ২০০০ টাকা ছিল, এখন ৩৪০০ থেকে ৪০০০ টাকা। এছাড়া ভিআইপি কেবিনগুলোতেও প্রায় দিগুন ভাড়া নিচ্ছে। ঈদ উপলক্ষে এভাবে লঞ্চগুলোতে বাড়তি ভাড়া আদায় করার ফাঁদে পড়েছে যাত্রীরা। বাধ্য হয়ে বাড়তি ভাড়া দিয়েই তাদের গন্তব্যে যেতে হচ্ছে। অথচ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কোন তদারকি নেই। এরফলে বহাল তবিয়তে লঞ্চ কর্তৃপক্ষ বাড়তি ভাড়া নিয়ে যাচ্ছে।
রয়েল ক্রুজ-২ নামক লঞ্চে ঢাকা যাওয়া যাত্রী মিজানুর রহমান বলেন, ‘আমি কোড়ালিয়া থেকে ঢাকার উদ্দেশ্যে যাওয়ার জন্য একটি ডাবল কেবিন বুকিং দেই। সেই কেবিনের জন্য ৩৪০০ টাকা নেওয়া হয়েছে। অথচ অন্য সময় এই কেবিনের ভাড়া ১৭০০-১৮০০ টাকা। এভাবে বাড়তি ভাড়া আদায় এক ধরণের স্বেচ্ছাচারিতা।’ জাহিদ-৩ লঞ্চের যাত্রী খালিদ হাসান কিরণ বলেন, ‘সর্বোচ্চ এক হাজার টাকার সিঙ্গেল কেবিন এখন এই লঞ্চে ১৭০০ টাকা। আমি অনেক বুঝিয়ে ১৫০০ টাকা দিছি।’
শনিবার ঈদের পাঁচদিন দিন হলেও কোড়ালিয়া থেকে ছেড়ে যাওয়া প্রিন্স অব রাসেল-৫ এবং ঈদ উপলক্ষে চলমান ঝান্ডা লঞ্চের কয়েকজন যাত্রী জানান, ঢাকাগামী এই রুটের সব ক’টি লঞ্চে অতিরিক্ত ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক যাত্রী অভিযোগ করেন, এই মুহূর্তে অগ্রীম টাকা দিয়েও কেবিন বুকিং করে যাত্রীরা প্রতারিত হচ্ছে। লঞ্চের কিছু লোকজন বেশি টাকা পেলেই বুকিং করা কেবিন অন্যদের বেশি টাকার বিনিময়ে দিয়ে দিচ্ছেন।
এবিষয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মাশফাকুর রহমান জানান, লঞ্চে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের বিষয়ে খোঁজ নিয়ে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দর্পণ বাংলা'কে জানাতে ই-মেইল করুন। আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দর্পণ বাংলা'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দর্পণ বাংলা | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি | Developed by UNIK BD