শনিবার ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০ই আশ্বিন, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

ব্রেকিং নিউজ
◈ রাঙ্গাবালীতে ভিটেবাড়ি ও কৃষি জমি রক্ষার দাবি পাঁচ পরিবারের ◈ রাঙ্গাবালীতে পল্লী বিদ্যুতের কাজে বাগড়া, সিন্ডিকেটের দাপট ◈ রাঙ্গাবালীতে পরকীয়ার জেরে মনির হত্যাকাণ্ড হত্যাকারীদের গ্রেফতার ও ফাঁসি দাবি ◈ রাঙ্গাবালীতে ৩শ’ ফুট লম্বা কাঠের সেতু নির্মাণ ◈ রাঙ্গাবালীতে বঙ্গবন্ধুর ৪৬তম শাহাদাৎ বার্ষিকী পালিত ◈ ‘শিগগরই ঘরে ঘরে বিদ্যুতের আলো জ্বলবে’-এমপি মহিব ◈ রাঙ্গাবালীতে এক মাদক ব্যবসায়ী আটক ◈ রাঙ্গাবালীতে করোনাকালীন ক্ষতিগ্রস্থ পল্লী উদ্যোক্তাদের ঋণ প্রদান করছেন বিআরডিবি ◈ গলাচিপায় ইউনিয়ন পর্যায়ে গণ টিকাদান কার্যক্রম শুরু ◈ গলাচিপায় বঙ্গমাতা ফজিলাতুন্নেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত

ফেসবুক পরিচয়ে প্রেম ঠাঁই মেলেনি প্রেমিকার, প্রেমিক উধাও!

প্রকাশিত : ০৯:২৫ অপরাহ্ণ, ২৩ জুলাই ২০২১ শুক্রবার 12 বার পঠিত

এম সোহেল প্রকাশক :

চেনাজানা ফেসবুকে। সেখান থেকেই গল্পের শুরুটা। প্রথমে বন্ধুত্ব, পরে প্রেমের সম্পর্ক। সেই প্রেম থেকে শারীরিক সম্পর্কে গড়ায়। ঘরবাঁধার স্বপ্ন নিয়ে ঘরছাড়ার সিদ্ধান্ত। সে অনুযায়ী প্রেমিকের হাত ধরে প্রেমিকা ঘর ছাড়ে। কিন্তু সেই ঘরবাঁধার স্বপ্ন পূরণ হলো না। প্রেমিকের পরিবার জানতে পারে ঘটনা। ভয় পেয়ে প্রেমিকাকে হোটেলে রেখে প্রেমিক উধাও হয়। তাই কোন উপায় অন্ত: না পেয়ে বিয়ের দাবি নিয়ে প্রেমিকের বাড়ি অনশন করে প্রেমিকা। কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেখানেও ঠাই মেলেনি তার। স্থানিয় ইউপি সদস্যের খবরে পুলিশ এসে প্রেমিকা ও তার বাবা-মাকেসহ থানা হেফাজতে নিয়ে যায়। এ ঘটনা পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের চরগঙ্গা গ্রামে ঘটেছে।
ওই প্রেমিকার নাম সানিয়া (ছদ্মনাম)। তার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার আমরাগাছিয়া ইউয়িনের কালিকাবাড়ি গ্রামে। সে বর্তমানে ঢাকার যাত্রাবাড়ির ডগাই বাজারে বসবাস করছে। আর প্রেমিকের নাম লিমন। বাড়ি রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের চরগঙ্গা গ্রামে এবং সে ওই গ্রামের বেল্লাল হাওলাদার। তারা দু’জনই অনার্স পড়–য়া।
এদিকে পুলিশ হেফাজতে নেওয়ার আগে পুরো এ ঘটনার বর্ণনা প্রতিবেদককে মুঠোফোনে জানান সানিয়া। এ কথোপকথনের অডিও ক্লিপ প্রতিবেদকের কাছে সংরক্ষিত আছে। সানিয়ার দাবি, ৫ বছর ধরে লিমনের সঙ্গে তার প্রেমের সম্পর্ক। ফেসবুকের মাধ্যমে তাদের পরিচয়। শারীরিক সম্পর্কে গড়ায় দেড় বছর। বিভিন্ন সময় তারা ঢাকায় দেখা করতো। সর্বশেষ ১৮ আগস্ট থেকে পটুয়াখালী ও বরিশাল লিমনের সঙ্গে আবাসিক হোটেলে অবস্থান করছিল। বিষয়টি লিমনের পরিবার জানতে পারে। পরে সানিয়াকে বরিশাল রেখে লিমন পালিয়ে যায়। কোন উপায় না পেয়ে লিমনের বাড়িতে চলে আসে সানিয়া। সেখান থেকে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আমিন ও লিমনের মামা বাহাদুর শিকদার এসে সানিয়াকে নিয়ে যায়। পরে সানিয়ার বাবা-মাকে খবর দেন। বাবা-মা আসলে সানিয়াকেসহ তাদের আটকে রাখে। তাই অসহায় সানিয়া মুঠোফোনে সাংবাদিকদের সহযোহিতা চান।
সানিয়ার গ্রামের বাড়ি পিরোজপুরের মঠবাড়িয়া উপজেলার আমরাগাছিয়া ইউয়িনের কালিকাবাড়ি গ্রামে। তারা বর্তমানে ঢাকার যাত্রাবাড়ির ডগাই বাজারে বসবাস করছে। আর লিমনের বাড়ি রাঙ্গাবালী উপজেলার বড়বাইশদিয়া ইউনিয়নের চরগঙ্গা গ্রামে এবং সে ওই গ্রামের বেল্লাল হাওলাদার। তারা দু’জনই অনার্স পড়–য়া। স্থানীয়রা জানান, শুক্রবার দুপুরে বিয়ের দাবিতে লিমনের বাড়িতে অবস্থান নেয় ওই মেয়ে। লিমনের পরিবার স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আমিনকে বিষয়টি জানায়। পরে নুরুল আমিন এসে মেয়েটিকে নিয়ে সাবেক ইউপি সদস্য মাসুদ মেম্বরের চরহালিম গ্রামের বাড়িতে রাখেন। পরে ওই ইউপি সদস্য মেয়ের পরিবারকে খবর দিলে শনিবার সকাল ১০ টায় বাবা-মা আসেন। এরপর সানিয়াকে ঢাকা পাঠানোর জন্য আপোষ-মিমাংসার অনেক চেষ্টা করলেও কোন সুরহা হয়নি। সানিয়া কোনমতেই এলাকা ছাড়তে রাজি হননি। একারণে সানিয়া ও তার বাবা-মাকে অবরুদ্ধ করে রাখে লিমনের পরিবার। বিষয়টি জানতে পেরে শনিবার রাত ৯ টার দিকে রাঙ্গাবালী থানা পুলিশ গিয়ে চরহালিম গ্রাম থেকে ওই মেয়ে এবং তার বাবা মাকে উদ্ধার করে। এসময় সেই বাড়িতে শত শত মানুষ ঝড়ো হয়।
স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল আমিন বলেন, বিষয়টি সামাধানের চেষ্টা করেছি। কিন্তু ব্যর্থ হয়ে পুলিশকে জানিয়েছি। তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবে। রাঙ্গাবালী থানায় অবস্থানকালে সানিয়ার বাবা-মা বলেন, মেয়ে ঘর থেকে প্রাইভেট পড়ানোর কথা বলে বের হয়। পরে নিখোঁজ মেয়ের সন্ধান পেয়ে ছুঁটে এসে এ ঘটনা জানতে পারেন তারা। যদিও লিমনের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক আগে থেকেই সানিয়ার মা জানতো। পুলিশ হেফাজতে থাকাকালীন রোববার সকালে সানিয়া মুঠোফোনে বলেন, আমরা পটুয়াখালী যাচ্ছি। মামলা দিতে।
রাঙ্গাবালী থানার ওসি আলী আহম্মেদ বলেন, ঘটনাস্থল পটুয়াখালী। তাই সিনিয়র অফিসারদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ হেফাজতে রোববার সকালে ওই মেয়ে ও তার বাবা-মাকে পটুয়াখালী সদর থানায় পাঠানো হয়েছে।

 

শেয়ার করে সঙ্গে থাকুন, আপনার অশুভ মতামতের জন্য সম্পাদক দায়ী নয়। আপনার চারপাশে ঘটে যাওয়া নানা খবর, খবরের পিছনের খবর সরাসরি দর্পণ বাংলা'কে জানাতে ই-মেইল করুন। আপনার পাঠানো তথ্যের বস্তুনিষ্ঠতা যাচাই করে আমরা তা প্রকাশ করব।

দর্পণ বাংলা'র প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।

এই বিভাগের জনপ্রিয়

© ২০২১ সর্বস্বত্ব ® সংরক্ষিত। দর্পণ বাংলা | এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বে-আইনি | Developed by UNIK BD