সর্বশেষ :

দায় স্বীকার রিপনের

অনলাইন ডেস্ক ০৩:০০, ১২ জুন ২০১৯

চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে দুর্ধর্ষ সন্ত্রাসী অমিত মুহুরীকে খুনের দায় স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন এ মামলার একমাত্র আসামি রিপন নাথ (২৮)। পায়ের কাছে ঘুমাতে বলায় ক্ষোভ থেকে কারাকক্ষে ঘুমন্ত অবস্থায় অমিত কুমার মুহুরীকে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে একাই হত্যা করার কথা স্বীকার করেছেন তিনি। গতকাল মঙ্গলবার চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম মহিউদ্দিন মুরাদের আদালতে ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি দেন এই হত্যা মামলার আসামি রিপন।

গত ২৯ মে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে খুন হন হত্যা মামলার আসামি যুবলীগের কর্মী অমিত মুহুরী। এ ঘটনায় করা হত্যা মামলার আসামি রিপন নাথকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের হেফাজতে নেওয়ার আদেশ দেওয়া হয় ৩ জুন। জবানবন্দি শেষে আদালত তাঁকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। 

হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের শেষ দিন গতকাল রিপন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেন বলে চট্টগ্রাম মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার (প্রসিকিউশন) মো. কামরুজ্জামান জানিয়েছেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা নগর গোয়েন্দা পুলিশের পরিদর্শক আজিজ আহমদ বলেন, ‘জবানবন্দিতে রিপন জানান, ঘটনার দিন সন্ধ্যার পর তিনি অমিত মুহুরীর সঙ্গে ধূমপান করেন। রাতে অমিত তাঁকে পায়ের দিকে ঘুমাতে বললে তিনি রাজি হননি। সে সময় অমিত তাঁকে জোর করেন এবং ভয় দেখান। এ কারণে অমিত ঘুমিয়ে গেলে রাগের মাথায় তিনি ইট দিয়ে অমিতের মাথায় আঘাত করেন।’

তিনি বলেন, ‘এ ঘটনার তদন্ত এখনো শেষ হয়নি। রিপন ১৬৪ ধারার জবানবন্দিতে যা বলেছেন তা আমরা খতিয়ে দেখব। অন্য বেশ কিছু বিষয় নিয়েও আমরা কাজ করছি। সব কিছু সমন্বয় করা হবে।’

এই মামলার তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয় গোয়েন্দা পুলিশকে। এরপর রিপনকে এই মামলায় গ্রেপ্তার দেখাতে এবং হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি চেয়ে আবেদন করা হয়।

কেন্দ্রীয় যুবলীগের উপ-অর্থবিষয়ক সম্পাদক হেলাল আকবর চৌধুরী বাবরের অনুসারী হিসেবে পরিচিত অমিতের বিরুদ্ধে নিজের বন্ধু ইমরানুল করিম ইমনকে হত্যা, রেলের দরপত্র নিয়ে জোড়া খুনসহ অন্তত ১৩টি মামলা আছে। হত্যা, পুলিশের ওপর হামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগে আগেও তিনি একাধিকবার পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হয়েছেন।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ