নন্দীগ্রামে সেই গৃহশিক্ষকের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা, ছাত্রী উদ্ধার

অনলাইন ডেস্ক ০৩:০০, ১৩ অক্টোবর ২০১৯

বগুড়ার নন্দীগ্রামে গৃহশিক্ষক শ্রী উজ্জল কুমারের বিরুদ্ধে থানায় অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়েছে। সে উপজেলার বুড়ইল ইউনিয়নের দাসগ্রামের আশুতোষ চন্দ্রের ছেলে। আজ রবিবার দুপুরে গৃহশিক্ষক শ্রী উজ্জল কুমার ও তার ফুফাতো ভাই চঞ্চলকে বগুড়া কোর্ট হাজতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, কুন্দারহাট ইনছান আলী দ্বিমুখি উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির এক ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তোলে গৃহশিক্ষক শ্রী উজ্জল কুমার। গত বৃহস্পতিবার সকালে ওই ছাত্রী কুন্দার হাটে গৃহশিক্ষকের কাছে প্রাইভেট পড়তে আসে। সেদিনই ভারতে মামার বাড়িতে বেড়াতে নিয়ে যাওয়ার কথা বলে ছাত্রীকে নিয়ে বের হয়। মেয়েটি নিখোঁজের পরেই থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার পরিবার।

এরপরে শনিবার সন্ধ্যায় দিনাজপুরের হিলি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে পালানোর সময় গৃহশিক্ষকসহ প্রেমিকাকে আটক করে হিলি ইমিগ্রেশন পুলিশ। সেখানে গৃহশিক্ষক শ্রী উজ্জল কুমার ও তার ফুফাতো ভাই চঞ্চল কুমারসহ প্রেমিকাকে আটক করে। এ ঘটনায় মেয়ের বাবা বাদী হয়ে নন্দীগ্রাম থানায় গৃহশিক্ষকসহ দুইজনের নামে অপহরণ মামলা দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শওকত কবির জানান, তারা হিলি সীমান্ত দিয়ে অবৈধভাবে ভারতে পালানোর চেষ্টা করার সময় তাদের আটক করা হয়েছে। থানায় তাদের বিরুদ্ধে অপহরণ মামলা দায়ের করা হয়েছে।

পাঠকের মন্তব্য

লাইভ

টপ